তথ্য

ইউরোপের গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানে হ্যাকারদের হামলা

5views

মাইক্রোসফট জানিয়েছে, ‘ফ্যান্সি বেয়ার’ নামে রুশ হ্যাকারদের একটি দল ইউরোপের বেশ কয়েকটি ‘থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক’-এ সাইবার হামলার পরিকল্পনা করছে৷ মে মাসে অনুষ্ঠেয় ইউরোপীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে৷

Illustration - Computer - Cyberkriminalität

২০১৮ সালের শেষ থেকেই শুরু হয়েছে ইউরোপের বিভিন্ন ‘থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক’ ও বেসরকারি সংস্থার ওয়েবসাইট হ্যাক করার প্রচেষ্টা৷ বুধবার প্রকাশিত মাইক্রোসফটের একটি ব্লগপোস্টে এই তথ্য দেয়া হয়েছে৷

অ্যাসপেন ইন্সটিটিউট, জার্মান মার্শাল ফান্ড ও জার্মান ফরেন রিলেশন কাউন্সিলের মতো গুরুত্বপূর্ণ সংস্থার ১০৪টি অ্যাকাউন্ট ইতিমধ্যে  সাইবার-হামলায় আক্রান্ত হয়েছে বলে ঐ ব্লগপোস্টে জানানো হয়৷

মাইক্রোসফটের মতে, হামলার পেছনে রয়েছে আলোচিত হ্যাকার-দল ‘স্ট্রনটিয়াম’, যা ‘ফ্যান্সি বেয়ার’ ও ‘এপিটি২৮’ নামেও পরিচিত৷

পেছনে রাশিয়া?

বিশেষজ্ঞদের মতে, রাশিয়ার সামরিক গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এই হ্যাকারদের মদত দিচ্ছে৷ ২০১৫ সালে জার্মান সংসদের ওয়েবসাইট হ্যাক হওয়ার পেছনেও এই সংস্থাগুলি জড়িত ছিল বলে তাদের ধারনা৷Symbolbild Anonymous Hackerসাইবার অপরাধের বিভিন্ন ধরনপরিচয় চুরিআজকাল অনলাইনে কেনাকাটা করছেন অনেকে৷ এরজন্য নাম, ঠিকানা, ই-মেল, ক্রেডিট কার্ডের তথ্য ইত্যাদি দিতে হয়৷ সমস্যাটা সেখানেই৷ যেসব ওয়েবসাইটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভালো নয়, সেখানে এই তথ্যগুলো দিলে তা অপরাধীর কাছে চলে যাবার সম্ভাবনা থাকে৷ সেক্ষেত্রে অপরাধী আপনার তথ্য ব্যবহার করে আপনার ক্রেডিট কার্ড শূন্য করে দিতে পারে৷ কারণ আপনার যে পরিচয় চুরি হয়ে গেছে!

হ্যাকাররা সেই সব সংস্থাকে টার্গেট করছে, যারা মূলত ট্রান্স-অ্যাটলান্টিক নীতি, গণতন্ত্র চর্চা ও নির্বাচনি নীতি নিয়ে কাজ করে থাকে৷ বেলজিয়াম, ফ্রান্স, জার্মানি, পোল্যান্ড, সার্বিয়া ও রোমানিয়ায় এসব সংস্থার হয়ে কাজ করা কর্মচারীদের তথ্য পেতে ভুয়া ওয়েবসাইট ও ভাইরাস আক্রান্ত ইমেলের সহায়তা নেয়া হয়৷

আসন্ন ইউরোপীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ধারাবাহিক এই হামলাগুলো হচ্ছে বলে ব্লগপোস্টে জানানো হয়৷

ইতিমধ্যে, এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে  মাইক্রোসফট জার্মানি, ফ্রান্স ও স্পেনসহ ইউরোপের ১২টি দেশে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক নতুন সফটওয়্যার ‘অ্যাকশন গার্ড’ চালুর ঘোষণা করেছে৷

Leave a Response